ভারতীয় ভিসার চেকলিস্ট

Published : অক্টোবর ১৫, ২০১৭ | 1340 Views

ইন্ডিয়ান ভিসা আবেদনের চেকলিস্ট: খুলনাবাসীদের জন্য

খুলনা ইন্ডিয়ান ভিসা সেন্টারে কিছু নতুন নিয়ম জারি করা হয়েছে ভিসা পাওয়া প্রত্যাশীদের জন্য। এখন থেকে ব্যাংক স্টেটমেন্ট এর সাথে ব্যাংকের চেক বইও সাথে নিয়ে যেতে হবে। আপনারা যারা ইন্ডিয়া যেতে চাচ্ছেন বা প্রস্তুতি নিচ্ছেন তাদেরকে খুলনার ইন্ডিয়ান ভিসা সেন্টারে পাসপোর্ট সহ আনুষঙ্গিক পেপারস জমা দিতে হয়। আগের নিয়মের সাথে আরো ২ টা নতুন নিয়ম যোগ করা হয়েছে।

আবার যারা আগে ভিসা পেয়েছিলেন কিন্তু মেয়াদ শেষ তাদের ক্ষেত্রেও একই নিয়ম অর্থাৎ নতুন বা পুরাতন সবার জন্য একই নিয়ম। আজ ট্যুরিস্ট ও মেডিকেল ভিসার জন্য যারা Apply করবেন তাদের জন্য বিস্তারিত তুলে ধরছি।

আসুন ভিসার জন্য সঠিক কি কি পেপারস লাগে তার একটা লিস্ট দেই তাহলে সহজে বুঝবে: (Tourist)

প্রথম এক সেট কিভাবে সাজাবেন তার লিস্ট দেখুন:

১। প্রথমে Visa Application Main Copy
২। ন্যাশনাল আইডির ফটোকপি
৩। বিদ্যুৎ বিলের পেপারস চলতি বা আগের মাসের
৪। ব্যাংক স্টেটমেন্টের ফটোকপি
৫। নাগরিক সনদপত্র এর ফটোকপি
৬। ট্রেড লাইসেন্স এর ফটোকপি

বা প্রত্যায়ন পত্র যদি ছাত্র হন সাথে HSC/SSC এর সার্টিফিকেট এর কপিও দিতে হবে

বা চাকরিজীবী হলে প্রতিষ্ঠান প্রধান এর থেকে প্রত্যায়ন পত্র বা NOC নিতে হবে।
৭। পাসপোর্ট এর জাতীয় সংগীতের পুরো কপি
৮। পাসপোর্ট এর মেইন পেজের কপি
৯। পাসপোর্ট এর ৪ ও ৫ নং পেজের একসাথে কপি
১০। যদি আগে কারো ভিসা থেকে থাকে মানে মেয়াদ শেষ তাহলে ভিসা পেজের ফটোকপি
১১। Visa Application এ যে ভিসা সাইজ ছবি লাগাবেন ( ২ বাই ২ ) তার ১০০% নতুন গেটাপে হতে হবে মানে ১/২ মাস আগের হতে হবে।

তবে আগে যারা ভিসা পেয়েছিলেন কিন্তু মেয়াদ শেষ তাদের আগের সেই ভিসা সাইজ ছবি দেওয়া যাবে না, নতুন করে আবার তুলে এপ্লিকেশন ফিলাপের সময় দিতে হবে, এটা কিন্তু নতুন নিয়ম করেছে যা জুন মাসের ১ তারিখ থেকে চালু হয়েছে।

বি:দ্র: খুলনাবাসিদের জন্য নিজের চেক বই সাথে নিতে হবে নতুবা টাকা জমা নিবে না।

অথবা যখন ব্যাংক স্টেটমেন্ট নিবেন তখন ব্যাংকের অফিসারকে বলবেন যে, যে স্টেটমেন্ট আপনাকে দিচ্ছে সেটার ফাইল যেন খুলনা ভিসা সেন্টারের মেইলে Email করে দেই— khulnaivac@gmail.com এই মেইল আইডিতে। যদি ইমেইল করা থাকে তাহলে আর চেক বই সাথে আনা লাগবে না। জমা দেওয়ার সময় বলবেন যে আপনাদের ইমেইল করে দিয়েছে ব্যাংক কতৃপক্ষ তাহলে উনারা চেক করে দেখবে যে ইমেইল আসছে কিনা।

আর যাদের ব্যাংক একাউন্ট নেই তারা স্টেটব্যাংক অফ ইন্ডিয়ার শাখা থেকে মিনিমাম ২০০ ডলার ইন্ডোরসমেন্ট করে নিতে হবে তাহলে আপনাকে একটু ডকুমেন্টস দিবে যা স্টেটমেন্ট হিসেবে কাজ করবে। তাহলে আর চেক বই বা স্টেটমেন্ট লাগবে না।

অহ ভালো কথা, যারা পুরাতন মানে ভিসার জন্য রিনিউ করবেন তাদের কিন্তু নতুন ছবি দিতে হবে, আগের ছবি দিয়ে Apply করলে ভিসা না পাওয়ার সম্ভবনা থেকে যাবে।

এতো গেল এক সেট ফটোকপির কাহিনি, এবার আসুন মুল পাসপোর্ট এর সাথে অরিজিনাল কি কি পেপারস দিতে হবে:

১। মুল পাসপোর্ট বই
২। মুল নাগরিক সনদপত্র
৩। মুল বিদ্যুৎ বিলের পেপারস
৪। ট্রেড লাইসেন্স / প্রত্যায়ন পত্র ছাত্র হলে / NOzC যদি চাকরিজীবন হন।
৫। মুল ব্যাংক স্টেটমেন্ট সাথে মুল চেক বই

অথবা যাদের ব্যাংক একাউন্ট নেই তারা ডলার ইন্ডোরসমেন্ট করবেন তাহলে সেটার মুল ডকুমেন্ট।

এই তো ব্যাচ হয়ে গেল, আর কিছুই না। এবার Ukash এজেন্টের কাছে যান যারা ভিসা ফি জমা নিয়ে থাকে। টাকা জমা দিন ৭০০ টাকা (খুলনাবাসির জন্য) তারপর ভিসা সেন্টারে লাইনে দাঁড়িয়ে জমা দিন। আর একটা টোকেন নিয়ে নিন।

খুলনা বাদে অন্য ভিসা সেন্টারে আপাতত চেক বই দেখানো লাগেনা বা চাইছে না। আর যা কিছু উল্লেখ করা হয়েছে ১০০% একই। তবে যে কোন সময় অন্য ভিসা সেন্টারেও চেকবই চাইতে পারে তাই যাদের চেকবই নেই তারা দ্রুত ব্যাংক থেকে চেকবই নিয়ে রাখুন অথবা ডলার ইন্ডোরসমেন্ট করলেও হবে।

 

 

 

Published : অক্টোবর ১৫, ২০১৭ | 1340 Views

  • img1

  • অক্টোবর ২০১৭
    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    « সেপ্টেম্বর   নভেম্বর »
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • Helpline

    +880 1709962798