মিরশ্বরাই দুই দিনের ট্যুর

Published : অক্টোবর ২, ২০১৭ | 1272 Views

২ দিনের মিরশ্বরাই ভ্রমণ: মুরাদপুর ওয়াইল্ড বিচ, মহামায়া লেক ও খইয়াছড়া ঝর্ণা

নয় অতি শীত নয় অতি গরম। আবহাওয়ারর এই কোমলতাকে সঙ্গী করে ২ দিনের ডে আউট। ঢাকা থেকে মাত্র ২শ কিলোমিটার দূরে গিয়ে আমরা এক জায়গাতেই পরশ নেব বনবাদাড় ঘেষা সাগরের বালুকাবেলা মুরাদপুর সীবিচ, মায়াময় সবুজ পর্বতে ঘেরা মহামায়া লেক আর ঝির ঝির চপলতার জলপ্রপাত খইয়াছড়া। আর রাতে থাকবো ইতিহাসের পরশ লাগা চম্পকনগর শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লায়। চলুন বের হই পথে।

ভ্রমণ বৃত্তান্ত

প্রথম দিন:

শুভ যাত্রা সন্ধ্যা ৭টায় মেরুল বাড্ডা থেকে। ফেনী ছাগলনাইয়া পৌছা রাত ১১টায়। ঢাকা চট্টগ্রাম মহাসড়ক থেকে মাত্র ২ কিলোমিটার ত্রিপুরা ছাগলনাইয়ার চম্পকনগরে। যেখানে ভাটির বীর খ্যাত শমসের গাজীর বাঁশের কেল্লা। সেখানে ডিনার ও রাত্রিযাপন।

দ্বিতীয় দিন:

ভোর ৬টায় শয্যাত্যাগ। সকাল ৭টায় নাস্তা। তারপর সকাল ৮টা থেকে ১০টা মুহুরী পজেক্ট পরিদর্শন। মুহুরী প্রজেক্ট থেকে ফিরে মহামায়া লেক।  মহামায়া লেকে নৌকা ভ্রমণ। ও মহামায়া ঝর্ণায় জলবিলাস। ১টা পর্যন্ত। তারপর দুপুরের খাবার। একটু রেস্ট নিয়ে ৩টার দিকে মুরাদপুর ওয়াইল্ড বিচ। এখানে সূর্যাস্ত দেখে। আবার ডেরায় ফেরা।

তৃতীয় দিন:

সকাল বেলায় নাস্তা করে খইয়াছড়ার উদ্দেশ্যে রওনা। আগেই বলে রাখি হাঁটতে হবে ৪.২ কিলোমিটার। পুরুষদের জন্য ১ ঘন্টা। মহিলা থাকলে দেড়ঘন্টা লেগে যেতে পারে। দুপুর পর্যন্ত খইয়াছড়া থেকে ফিরে মিরশ্বরাই এসে দুপুরের খাবার।

দুপুরে খাবার খেয়ে একটু বিশ্রাম তারপর নাপিত্তাছড়া ট্রেইল।  এই ট্রেইলে যেতে হবে দেড়ঘন্টার পথ যাওয়া দেড়ঘন্টার পথ আসা। এখানে তিনটি ঝর্ণা পড়বে প্রথম ৪০ মিনিটপর পাবেন কুপিকাটাকুম। তারপর আরো ২০ মিনিট পাহাড়ে পথ হেঁটে গেলে পাবো মিঠাছড়ি। এজন্য একটি খাড়া পাহাড় পাড়ি দিতে হবে। সেখান থেকে আরো ৪০ মিনিট হাঁটার পর দেখা মিলবে তৃতীয় ঝর্ণা বান্দরকুম বা বান্দরিছড়া। এই তিনটা মিলে নাপিত্তাছড়া ট্রেইল।

বিকেলে ফিরতে হবে হাইওয়েতে। সন্ধ্যা ৬টার মধ্যে রওনা দিলে রাত ১০টা ১১ টায় ঢাকায় এসে পৌছতে পারবেন।

যাতায়াত: এসি মাইক্রো

থাকা: প্রথমদিন বাঁশের কেল্লা ইকো রিসোর্ট। দ্বিতীয় দিন হোম স্টে।

খরচাপাতি:

যাবো মাইক্রোভাড়া করে। ৮জনের টিম। তাই খরচ একটু বেশী পড়বে। জনপ্রতি= ৬০০০টাকা

(ভাড়া=২০০০, থাকা ১৫০০, খাওয়া ২ দিন ১০০০, নৌভ্রমণ: টিকেট ও সিএনজি: ৫০০)

 

 

 

একটা কথা হল, চট্টগ্রামও কিন্তু ম্যালেরিয়াপ্রবণ একটি এলাকা। সাধারণত ম্যালেরিয়া প্রবণ এলাকাতে যাওয়ার আগে সতর্কতা হিসেবে যাত্রা শুরুর আগের ১ সপ্তাহ থেকে যাত্রা শেষ হবার পর ৪ সপ্তাহ পর্যন্ত ডক্সিসাইক্লিন ট্যাবলেট(১০০মি.গ্রা.) খেতে হয়। তারপরও পাহাড়ী এলাকাতে যাওয়ার আগে অবশ্যই একজন ডাক্তারের সাথে কথা বলে যাবেন।

Published : অক্টোবর ২, ২০১৭ | 1272 Views

  • img1

  • অক্টোবর ২০১৭
    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    « সেপ্টেম্বর   নভেম্বর »
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫
    ১৬১৭১৮১৯২০২১২২
    ২৩২৪২৫২৬২৭২৮২৯
    ৩০৩১  
  • Helpline

    +880 1709962798