প্রতিদিনের ছোট ছোট কিছু সমস্যা

Published : আগস্ট ২৭, ২০১৭ | 849 Views

দৈনিন্দিন জীবনে সমস্যা থেকে মুক্তি

 

১. জুতার দূর্গন্ধ থেকে মুক্তি

জুতার মধ্যে সামান্য বেকিং সোডা ছিটিয়ে দিন। পরদিন ভেতরের অংশ মুছে পরিষ্কার করে জুতা পরুন। দুর্গন্ধ থাকবে না। তবে চামড়ার জুতায় বারবার বেকিং সোডা ব্যবহার করবেন না।  জুতার মধ্যে এক টুকরো ফেব্রিক সফটনার সিট রেখে দিন রাতে।। পরদিন সেটি বের করে জুতা পরুন। গন্ধ দূর হবে জুতার। এক টুকরো কাপড় বা তুলা লবঙ্গ তেলে ভিজিয়ে জুতার মধ্যে রেখে দিন সারারাত। জুতার দুর্গন্ধ দূর হবে। কয়েকটি লবঙ্গ ফেলে রাখলেও উপকার পাবেন। ফুটন্ত পানিতে টি ব্যাগ ফেলে রাখুন ২ মিনিট। টি ব্যাগ ঠাণ্ডা হলে জুতার মধ্যে রেখে দিন। এক ঘণ্টা পর টি ব্যাগ সরিয়ে জুতার ভেতরের অংশ ভালো করে মুছে নিন। দুর্গন্ধের পাশাপাশি দূর হবে জুতায় থাকা ব্যাকটেরিয়া।

 

২. হেচকি বন্ধ না হলে

আস্তে আস্তে পানি পান করার পরও যদি হেচকি বন্ধ না হয় তাহলে কি করবেন। কাউকে বলুন ভয় দেখাতে বা চমকে দিতে।   নাকের কাছে স্মেলিং সল্ট নিয়ে ভাল করে শুঁকতে থাকুন। হাঁছি আসলেও হেচকি চলে যেতে পারে।  জিভ ধরে টানুন।  আধ চা-চামচ শুকনো চিনি জিভের তলায় রাখুন। ২ মিনিটের মধ্যে ৩ বার এমনটা করুন।  হা করে মুখের মধ্যে ‍কিছু বাতাস নিন। নাক বন্ধ করে বাতাসগুলো গিলে ফেলুন সাথে একটা ঢোক গিলুন। এমনভাবে বাতাস খেতে থাকুন যেন আপনি পানি খাচ্ছেন। এভাবে তিনবার করুন।


৩. মুখের দূর্গন্ধ আর নয়

অবশ্যই ২ বেলা দাঁত মাঝুন। সকালে এবং রাতে। মুখের দুর্গন্ধের কারণ কিন্তু ব্যাকটেরিয়া। ভাল গ্রিন টি বা ব্ল্যাক টি পান করলে এই সব ব্যাকটেরিয়া দূর হয়। একটি পাতিলেবু বা কমলালেবুর কোয়া চিবিয়ে নিন। সাইট্রিক অ্যাসিডে উজ্জীবিত হবে মুখের ভিতরের স্যালাইভা এবং ব্যাকটেরিয়া দূর হবে।   সপ্তাহে একদিন বেকিং সোডা দিয়ে দাঁত মাজুন। খেতে পারেন খাবার পর সুগন্ধি মসলা কিছু অল্প করে। তবে কাঁচা পেয়াজ একদম নয়।  মুখশুদ্ধি করতে আদা, ধনিয়া জিরাও ভালো কাজ দেয়।

দাঁত মাজার সময়ে জিভ ছাঁছা ছোলাকরা  খুব জরুরি। খাবারের আস্তরণ জিভের  দুর্গন্ধের একটি প্রধান কারণ। দিনে অন্তত একবার জিভ পরিষ্কার করুন।  দিনে একবার ১০০ গ্রাম টক দই খাওয়া অভ্যাস করুন। অথবা ভিটামিন ডি ট্যাবলেটও খেতে পারেন।  সিগারেট বা তামাক খাওয়া সম্পূর্ণভাবে বর্জন করুন।


৪. আন্ডার আর্মে গামের দাগ

একটি পাত্রে অল্প হলুদ, মধু অথবা টক দই আর এক কোয়া লেবুর রস মিশিয়ে পেস্ট তৈরি করে নিন। পেস্টটি স্নানের আগে আন্ডারআর্মে কিছুক্ষণ লাগিয়ে তার পরে ধুয়ে ফেলুন। রোজ না পারলেও সপ্তাহে দু’দিন করুন। পাতলা করে আলু কেটে তার উপরে কয়েক ফোঁটা জল ফেলে ভিজিয়ে নিন। তার পরে সেটি ঘাড়, গলার ভাঁজ, আন্ডারআর্ম ও কনুইয়ে ঘষতে থাকুন। আলুর রস মৃতকোষ তুলতে সাহায্য করে।

 

৫. সহজ জীবন

যদি আপনার খুবব্শেী শার্ট না থাকে তাহলে সেগুলো যেন সাদা বা সাদার কাছাকাছি হয়। আপনার যদি ২/১পি প্যান্ট থাকে সেগুলো যেন কালো বা প্রায় কালো হয়। আপনার যদি একজোড়ার বেশী জুতো না থাকে তাহলে সেটি যেন কালো হয়। আপনার একটি বেল্ট থাকলে সেটাও কালো হওয়া চাই। আপনার যদি একটি মাত্র স্যুট থাকে সেটাও কালো হলে ভালো। মোজা এবং কালোর মধ্যে হবে। টাই হবে সাদা কালোর ম্যাচ করা। কারণ সাদাকালো সবক্ষেত্রে ম্যাচ করবে।

ইন্টারনেট অবলম্বনে: জাহাঙ্গীর আলম শোভন

Published : আগস্ট ২৭, ২০১৭ | 849 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798