লক্ষ্মীপুরে পর্যটন

Published : এপ্রিল ১৭, ২০১৭ | 2372 Views

লক্ষীপুর

লক্ষ্মীপুর ভ্রমণ

উপকূলীয় জেলা লক্ষীপুর। মেঘনার কুল ঘেষে েএখানকার মানুষের যাপিত জীবন। সেখানেও আছে এমনকিছু দেখার মতো জায়গা যেগুলো সেখানকার মানুষের জীবন ও সংগ্রামকে প্রতিভাত করে টিকে আছে। সেরকম কিছু স্থান থেকে জেনে নিই কয়েকটা লোকেশন।

দালাল বাজার জমিদার বাড়ী

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর তেহমুনী হতে বাস/সিএনজি যোগে দালাল বাজার ইউনিয়নে অবস্থিত জমিদার বাড়ীতে যাওয়া যায়। সদর উপজেলা হতে ৫ কিলোমিটার দূরত্ত্বে সড়ক পথে লক্ষ্মীপুর রায়পুর রোডে অবস্থিত।
দালাল বাজার খোয়া সাগর দিঘী। লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলার উত্তর তেহমুনী থেকে যে কোন গাড়ি, সিএনজি ইত্যাদি দিয়ে দালাল বাজার খোয়া সাগর দিঘীতে যাওয়া যায়। দালাল বাজার, লক্ষ্মীপুর সদর, লক্ষ্মীপুর।
সাইফিয়া দরবার শরীফ লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা উত্তর তেহমুনী থেকে বাস/সিএনজি যোগে চররমনী মোহন ইউনিয়নে অবস্থিত সাইফিয়া দরবার শরিফে যাওয়া যায়। ২০নং চররমনীমোহন ইউনিয়ন,৬নং ওয়ার্ড, লক্ষ্মীপুর সদর, লক্ষ্মীপুর।
মতিরহাট মাছঘাট

কমলনগর উপজেলা থেকে বাস যোগে তোরাবগঞ্জ বাজার নেমে সেখান থেকে সিএনজি যোগে মতির হাট মাছ বাজার যাওয়া যায়। কমলনগর উপজেলার মতির হাট বাজারের মাছ ঘাট। এখানে প্রতিদিন জেলেরা নদী থেকে নানা প্রজাতির মাছ ধরে এই ঘাটে এনে উন্মুক্ত ভাবে বিক্রি করে। প্রতিদিন হাজারো জেলের মিলন মেলা হয় এই মতির হাট মাছ ঘাটে বিরল প্রজাতীর মাছ পাওয়া এই ঘাটে। লক্ষ্মীপুর জেলার বিভিন্ন প্রান্ত হতে মানুষ এখানে মাছ ক্রয় করতে আসে। মতির হাট মাছ ঘাটের সুনাম শুধু লক্ষ্মীপুর জেলায় নায় বৃহত্তম নোয়াখালীতে রয়েছে। যাদের বেশি মাছের প্রয়োজন হয় তারাই চলে আসে স্বনাম ধণ্য এই মতির হাট মাছ ঘাটে। যে যার মতো করে চাহিদা অনুযায়ী নিয়ে যায় বিভিন্ন প্রকারের মাছ ক্রয় করে নিয়ে যায়। কমলনগর, লক্ষ্মীপুর।

 


মৎস্য প্রজনন প্রশিক্ষণ কেন্দ্র

লক্ষ্মীপুর বাস স্ট্যান্ড থেকে সি এন জি যোগে যাওয়া যায়। রায়পুর পৌরসভা, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর মেঘনা নদী বাসে অথবা সিএনজি অথবা নৌকাযোগে এখানে আসা যায়। রামগতি, লক্ষ্মীপুর।

কাঞ্চননগর মাতাব্বর নগর নদী ভ্রমন

ঢাকা, চট্টগ্রাম বিভিন্ন বিভাগ ও জেলা থেকে বাস যোগে লক্ষ্মীপুর জেলার ঝুমুর বাসস্ট্যান্ডে নামতে হবে। তারপর কমলনগর উপজেলায় আসার জন্য মিনিবাস বা সিএনজি যোগে কমলনগর উপজেলার হাজির হাট বাজারে নামতে হবে এবং রিক্সা বা সিএনজি যোগে সাহেবেরহাট ইউনিয়নের মেঘনানদীর তীরে যাওয়া যাবে।

চরভূতা মৎস্য জলাশয় (ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন)

লক্ষ্মীপুর জেলাই লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা ১৭ নং ভবানীগঞ্জ ইউনিয়ন এর চরভূতা গ্রামে অবস্থিত। ভবানীগঞ্জ চৌরাস্তা থেকে ২ কিলোমিটিার পশ্চিমে এই জলাশয় টি অবস্থিত। চৌরাস্তা থেকে রিক্সা ভবানীগঞ্জ বাজার এর উপর দিয়ে জলাশয়ে খুব সহজে যাওয়া যায়। ভবানীগঞ্জ ইউনিয়নের চরভূতা গ্রামে অবস্থিত
ইসহাক জমিদার বাড়ী

লক্ষ্মীপুর সদর উপজেলা হইতে সিএনজি যোগে উত্তর হামছাদী ইউনিয়ন পরিষদের পাশ দিয়ে উত্তর র্পর্বে আধা কি:মি গেলে উক্ত জমিদার বাড়ীতে যাওয়া যায় । বাড়ীটি প্রায় ১৬ একর জমির উপর তৎকালীন প্রভাবশালী ব্যক্তি ইসহাক জমিদার বাড়ীটি নির্মান করার উদ্যোগ গ্রহন করেন । উতর হামছাদী ইউণিয়নের অন্তগত হাসন্দী গ্রামে অবস্থিত ।
সারিবদ্ধ গাছের সারি (ভবানীগঞ্জ) ভবানীগঞ্জ চৌরাস্তা থেকে ২ কিলোমিটার পশ্চিমে ভবানীগঞ্জ বাজার এর একটু সামনে, যাহা ভবানীগঞ্জ গ্রামে অবস্থিত। ভবানীগঞ্জ গ্রামে অবস্থিত
কালিরচর সাঁকো (ভবানীগঞ্জ-টুমচর)

ভবানীগঞ্জ চৌরাস্তা থেকে ৩ কিলোমিটার পশ্চিমে রিক্সা দিয়ে যাওয়া যায়। অথবা টুমচর দিয়ে ৪ কিলোমিটার পশ্চিমে রিক্সা অথবা সিনজি দিয়ে যাওয়া যায়। ভবানীগঞ্জ গ্রামে অবস্থিত ঘাসিয়ার চর উপজেলা থেকে রায়পুর সিএনজি স্টেশন থেকে সিএনজি করে খাসের হাট বাজার ভাড়া ২৫ টাকা সেখান থেকে রিক্সা যোগে ২০ টাকা ।
দত্তপাড়া চৌধুরী বাড়ী লক্ষ্মীপুর
জেলা শহর হতে প্রথমে বাসে কিংবা সিএনজি যোগে বটতলী.( ভাড়া প্রতি জন ১৫ টাকা ২০ টাকা ) বটতলী হতে সিএনজি যোগে দত্তপাড়া বাজারের নামবেন । অতপর “ দত্তপাড়া চৌধুরী বাড়ী “ র নাম বলুন । দত্তপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের পশ্চিশ-দক্ষিণ পার্শ্বে আবস্থিত ।
সুফলা দিঘী

১৮ নং কুশাখালী ইউনিযনের মদনা গ্রামে অবস্থিত। কুশাখালী শান্তির হাট বাজার থেকে বাজার থেকে পায়ে হেটে যেতে হয়। ১৮ নং কুশাখালী ইউনিযনের মদনা গ্রামে অবস্থিত।
বেড়ি বাধ (দালাল বাজার)

দালাল বাজার থেকে রিক্সা বা সিএনজি করে নন্দনপুর আসতে হবে। নন্দনপুর থেকে ১ কিঃ মিটার। রিক্সা বা পয়ে হেটে যাওয়া যায়। ০২ নং দক্ষিন হামছাদী ইউনিয়নের দঃ হামছাদী গ্রাম থেকে উত্তর বাঞ্চানগর পর্যন্ত।(ইউনিয়নের আভ্যন্তরিন এলাকা)
দত্তপাড়া কালী মাতা মন্দির

লক্ষ্মীপুর জেলা শহর হতে প্রথমে বাসে কিংবা সিএনজি যোগে বটতলী.( ভাড়া প্রতি জন ১৫ টাকা ২০ টাকা ) বটতলী হতে সিএনজি যোগে দত্তপাড়া বাজারের নামবেন । অতপর “ দত্তপাড়া কালী মাতা মন্দির “ র নাম বলুন । দত্তপাড়া বাজারের পূর্ব-মধ্য পার্শ্বে আবস্থিত ।
কালিরচর সাঁকো (টুমচর)

লক্ষ্মীপুর উপজেলা থেকে সি এন জি দিয়ে ইলির বাজার পযন্ত যাওয়া যায়।এ ফরে হেটে যেতে হয় কালিরচর রহমত খালি নদীতে। এটি কালিরচর দক্ষীন পাড়ে অবস্থিত টুমচর ইসলামিয়া ফাজিল মাদ্রাসা ইউনিয়ন পরিষদ থেকে হেটে যাওয়া যায়। টুমচর গ্রামে অবস্থিত মেঘনা নদী রায়পুর থানার সামনে থেকে সিএজি হয়ে হায়দরগঞ্জ বাজার থেকে রিক্সা যোগে যেতে হয়। ১নং উত্তর চর আবাবিল, রায়পুর, লক্ষ্মীপুর

কালিরচর চরমনসা হাওয়া পার্ক

চৌরাস্তা বাজার থেকে ২ কিলোমিটার পূর্বে গিয়ে চরমনসা গ্রামে ১৯ নং তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়নে অবস্থিত । এই পার্কটি তেওয়ারীগঞ্জ ইউনিয়ন, লক্ষ্মীপুর সদর, লক্ষ্মীপুর।

Published : এপ্রিল ১৭, ২০১৭ | 2372 Views

  • img1

  • এপ্রিল ২০১৭
    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    « মার্চ   মে »
     
    ১০১১১২১৩১৪১৫১৬
    ১৭১৮১৯২০২১২২২৩
    ২৪২৫২৬২৭২৮২৯৩০
  • Helpline

    +880 1709962798