নাফাকুমের জলধারায়

Published : ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭ | 1731 Views

নাফাকুমের জলধারায়

কুদরত ই খুদা, যুবরাজ

নাফাকুম জলপ্রপাত ভ্রমন।
২০-১-২০১৭ থেকে ২২-১-২০১৭

শুক্রবার ভোরে বান্দরবান পৌঁছানোর কথা থাকলেও অতিরিক্ত জ্যামের কারনে পৌঁছতে  ১ টা বেজে গেলো। বান্দরবান বাস স্টান্ডে নেমেই চড়লাম বহুল পরিচিত চান্দের গাড়িতে। হ্ঁযা ঠিক ধরেছেন আমাদের আগে থেকেই গাইড ঠিক করা ছিল। চাঁন্দের গাড়ি চলা শুরু করল। পাহাড়ের কোল ঘেষে রাস্তা দিয়ে আমরা দুরন্ত গতিতে ছুটে চলছি। আঁকা বাকা রাস্তা কখনো কখনো এতো উপরের দিকে উঠে গেছে যে মনে হবে আপনি রোলার কোষ্টারে উঠছেন আর নামছেন।

রাস্তার মাঝেই একপাশে গাড়ি থামিয়ে আমরা জল খাবারটা সেরে নিলাম। দেখতে দেখতে তিন ঘন্টা কোন দিক দিয়ে কেটে গেল ভেবেই পেলাম না। কিন্তু সত্যিই অনেক ভয় এবং উৎকন্ঠা কাজ করছিল মনে। তিন ঘন্টা পাহাড়ী উচু নিচু পথ বেয়ে অনেক ঝাকাঝাকির পর আমরা পৌঁছলাম থানচিতে।থানচি উপজেলা থেকেই নদীপথে যেতে হবে নাফাকুম।

জেনে নেয়া ভালো যে, থানচি এর পর থেকে কোন নেটওয়ার্ক কাজ করে না। থনাচি পর্যন্ত রবি আর জিপি। থানচির পর কিছুটা কাজ করে টেলিটক। এর জন্য যারা আগামীদেন  নাফাকুম  যাবেন বলে ঠিক করছেন তারা অবশ্যই আগে ভাগেই বাসায় জানিয়ে রাখবেন যে আপনি কিছু দিন নেটওয়ার্ক এর বাইরে থাকবেন। সম্ভব হলে টেলিটক এর একটা সিম নিয়ে নেবেন। থানচির পরে বিদ্যুৎ নেই এর জন্য আপনাকে অবশ্যই পাওয়ার ব্যাংক সাথে রাখতে হবে।  আপনার প্রয়োজনীয় ইলেক্ট্রনিক ডিভাইস চার্জ দেয়ার জন্য।

থানচি থেকে রেমাক্রি যাওয়ার জন্য একমাত্র পথ মেশিন চালিত ছোট নৌকা। পাহাড়ের গিরিখাতে পাথরের ধার ঘেষে ছোট্ট নৌকায় আপনাকে প্রায় ৩ ঘন্টার পথ পাড়ি দিয়ে রেমাক্রি পৌছাতে হবে। এই নৌকাতে ৫/৬ জনের বেশী বিপদজনক। পাহড়ী  সাংগু নদীতে আপনি দেখতে পারবেন প্রকৃতি কতটা অপরুপ সুন্দর্য্য নিয়ে সেজেছে আর আপনাকে স্বাগতম জানাচ্ছে। নদীর পানি কখনো কখনো হাটু পানির চেয়ে কম নৌকা থেকে নেমে যেতে হয়। কখনো খুব গভীর। কালো জল দেখে বোঝা যায় সেটা। কখনো পাথর ঘেঁষে চলতে হয়। এসময় হাত বাইরে থাকলে থেতলে যেতে পারে।

৩ ঘন্টার নৌকা ভ্রমণ শেষে আমরা পৌছলাম রেমাক্রিতে। এখানে আসলে মনে হবে পাহাড়ের সমারোহে এখানে এক নতুন পৃথিবী। রাতের আকাশের হাজার তারার মেলা। মনে হবে সুখ তারাটি হয়ত এক্ষুনি খসে পড়বে মাটিতে। এখানে আপনি রাত থাকার জন্য উপজাতিদের কর্টেজ গুলো ভাড়া নিতে পারবেন। আপনার গাইড কে বললে সে ম্যানেজ করে দিতে পারবে। সাধারণত প্রতি জনের জন্য আপনাকে ১৫০-২০০ টাকা করে দিতে হবে। আপনি যদি চান আপনার গাইডকে বলে রাতে বার বি কিউ করতে পারবেন। সে আপনাকে সব ম্যানেজ করে দেবে।

আমরা রাতে খেলাম কর্টেজ এর মালিক এর বাসায়। চাল কুমড়া দিয়ে মুরগী। স্বাদ সম্পর্কে এটুকুই বলব যে এদের রান্নার স্বাদ এর কোন তুলনা নেই। মিসেস মার্টিন রান্না পাহড়ী মুরগী পাহাড়ী কুমড়া আর পাহাড়ী চালের ভাত। স্বাদটা মনে হয় এখনো মুখে লেগে আছে।

রাতে খেয়ে আমরা ছোট্ট করে একটা ক্যাম্প ফায়ার করলাম। তার পর বেশি রাত না জেগে শুয়ে পড়লাম। কেননা পরের দিন আমাদের টার্গেট নাফাকুম জলপ্রপাত । পরের দিন ভোরে আমরা রওনা দিলাম আমাদের গন্তব্য স্থল নাফাকুম জলপ্রপাত এর উদ্দেশ্যে। নিজের চোখে দেখতে চাইলে আপনাকে বিরতিহীন হাটতে হবে ১০ কি.মি. এর মতো পাহাড়ি পথ। ০২ ডিগ্রী তাপমাত্রায় সাংগু নদীর হাটু পানিতে নামতে হবে  মোট ৬ বার।

প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা হাটার পর আমরা পৌছলাম আমাদের গন্তব্যে। আসলে এখানকার প্রকৃতির রূপের বর্ননাটা লিখে বলা প্রায় অসম্ভব। বলে রাখা ভালো এখানে বৃদ্ধ, এবং শিশুকে না নিয়ে যাওয়াই ভালো। আর যতটা পারবেন আপনার ব্যাগ হালকা রাখবেন।

আমরা ১ ঘন্টা নাফাকুমে সময় কাটালাম। তার পর আবার রওনা দিলাম রেমাক্রি এর উদ্দেশ্যে। আসলে এখানে আপনাকে যেতে হলে কষ্ট করার মন মানসিকতা নিয়েই যেতে হবে। আশা রাখি নাফাকুম ভ্রমনে আপনি নিরাশ হবেন না। সব কষ্ট দূর হয়ে যাবে আপনি যখন মন ভরে উপভোগ করবেন প্রকৃতির এই অপরুপ সৌন্দর্যকে।
সবশেষ ধন্যবাদ সবাইকে যারা আমার এই লেখাটি শেষ পর্যন্ত পড়েছেন।

আপনার ভ্রমণকে নিরাপদ ও আনন্দময় করতে আপনার পাশে রয়েছে চলবে ডট কম। আপনি দেশের যেকোনো জায়গায় ভ্রমণের জন্য চলবে ডট কম এর সেবা নিতে পারেন। বিমান টিকেট, বাস টিকেট, ট্রেন টিকেট, লঞ্চ টিকেট, হোটেল বুকিং ও মোবাইলে অনলাইনে ফ্লেক্সিলোড, টপআপ, রিলোড, ইফিল, রিফিল, রিচার্জ করার জন্য অবশ্যই আসুন www.cholbe.com এ। চলবে ডট কম এর কাস্টমার কেয়ার নাম্বারে যোগাযোগ করুন যেকোনো সেবা পেতে। ফোন: 01709 962797। বিমানের টিকেট ছাড়াও ট্যুরিস্ট ভিসা প্রসেস ও ট্যুর অপারেট করার জন্য চলবে ডট কম বিশ্বস্ত নাম। আপনি চলবে.কম এর সাথে যোগাযোগ করতে যুক্ত থাকুন ফেসবুকে পেজের সাথে https://www.facebook.com/CholbeTeam.

Published : ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭ | 1731 Views

  • img1

  • ফেব্রুয়ারি ২০১৭
    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    « জানুয়ারি   মার্চ »
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮  
  • Helpline

    +880 1709962798