পাতাং ঝিরি: ঝর ঝর ঝরণার জলে

Published : ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৭ | 2130 Views

পাতাং ঝিরি : ঝর ঝর ঝরণার জলে

পাতাং ঝিরি ও জিংসিয়াম জলপ্রপাত রুমা উপজলোয়  অবস্থতি। পাতাং ঝিরি জলপ্রপাত বগা লেকে যাওয়ার পথেই পড়ে। পাতাং ঝিরি জলপ্রপাত পথ র্পূবে অবস্থতি. যদি কেউ বগা লেক ভ্রমণে যেতে চান তিনি অবশ্যই পাতাং ঝিরি জলপ্রপাত যাবনে। এটি বর্ষাকালে জলপ্রপাত শীর্ষে পৌঁছানো খুবই কঠিন। কিন্তু শীতকালে কিছু নির্ভীক ভ্রমণপিয়াসী জলপ্রপাত শীর্ষে আরোহনের সাহস দেখাতে পারেন যদি সম্ভব হয়। পাতাং ঝিরি খুব বড় জলপ্রপাত নয়, কিন্তু এর গঠন এবং একটু আলাদা এজন্য এটা অন্যরকম সুন্দর।

পাতাং ঝিরি যেতে হলে বান্দরবান থেকে প্রথমে যেতে হবে রুমা উপজলোয়। এজন্য চাঁদের গাড়ি বা খোলা জীপ রয়েছে। ভাড়া পড়বে জনপ্রতি ১৫০ টাকার মতো তরে রিজার্ভ নিলে আরো বেশী পড়বে।  এটা ৩-৪ ঘন্টার পথ। পাহাড়ী উচুনিচু আঁকা বাঁকা পথ, তবে ভয় পাওয়ার কিছু নেই। যারা চান্দের গাড়ি চালায় তারা খুব প্রফেশনাল। তবে সাবধানে থাকতে হবে।

বান্দরবান ভ্রমনে যেতে আপনার ন্যাশনাল আইডি কাডের একাধিক কপি সাথে নিতে ভুলবেন না। বিভিন্ন পয়েন্টে রিপোর্ট করতে হয়। আরেকটি কথা। এখানে টেলিটক ছাড়া অন্যকোনো ফোনের নেটওয়ার্ক নেই। বিষয়টি মাথায় রাখবেন। বান্দরবান জেলা শহরে রবি ও জিপি থাকলেও উপজেলা বা রিমোট এলাকায় টেলিটকই ভয়রসা। গভীর জঙ্গলে কিন্তু সে ভরসাও নেই।

বান্দরবানে বেড়াতে গেলে যেখানেই যাবেন শুধুযে সে স্থানটি দেখতে যাবেন তা কিন্তু নয়। কেরানী হাট থেকে শুরু হবে প্রকৃতি দেখার পালা। তারপর বান্দরবান শহর থেকে রুমা যাওয়ার পথ। যতদূর চোখ যায় শুধু পাহাড় আর পাহাড়। দিগন্তজোড়া সবুজের আলপনা যেন নীল আকাশের সাথে জুড়ে নিয়েছে শিল্পীর তুলীর আঁচড়ের মতো।

বান্দরবার জেলা শহর থেকে কাছে কোনো কিছু দেখতে হলে যেতে পারেন স্বর্ণমন্দির কিংবা নীলগিরি ও নীলাচল। পাহাড়ী রাস্তায় আনকোরাদের বমি করার সম্ভাবনা থাকবে সেটাও মাথায় রাখবেন। বান্দরবান পুরো জেলাটিই একটা সুন্দরের ডিব্বা সূতরাং যা দেখবেন তাই চোখে লেগে থাকবে।

আপনার সুন্দর ভ্রমণ কামনায় জাহাঙ্গীর আলম শোভন

 

Published : ফেব্রুয়ারি ১০, ২০১৭ | 2130 Views

  • img1

  • ফেব্রুয়ারি ২০১৭
    সোম মঙ্গল বুধ বৃহ শুক্র শনি রবি
    « জানুয়ারি   মার্চ »
     
    ১০১১১২
    ১৩১৪১৫১৬১৭১৮১৯
    ২০২১২২২৩২৪২৫২৬
    ২৭২৮  
  • Helpline

    +880 1709962798