তিন দিনের সিলেট ভ্রমণ

Published : ডিসেম্বর ১৪, ২০১৬ | 4588 Views

সিলেট ভ্রমণ

তিন দিনের সিলেট ভ্রমণ

যা দেখবেন: সংগ্রামপুঞ্জি ঝরনা, খাসিয়া পল্লী, শাহ পরানের মাজার, শাহজালাল ( রহ:) এর মাজার, আরেকটূ দূরে শাহজালাল ইউনিভার্সিটির সুন্দর ক্যাম্পাস, রাতারগুল, লালাখাল, লাকাতুয়া চা বাগান, মালিনীছড়া চা বাগান, বিছানাকান্দী , পান্থুমাই, লক্ষনছড়া।
প্রথম দিন : জাফলং – সংগ্রামপুঞ্জি ঝরনা, খাসিয়া পল্লী, শাহ পরানের মাজার
সিলেট থেকে থেকে জাফলং। বাসে অথবা সিএনজিতে। সিএনজি ভাড়া ( ১৫০০-২০০০ টাকা) , বাসেও যাওয়া যায় কম খরচে কিন্তু যাত্রা পথের ফিলিংস টা পাওয়া যাবেনা। জাফলং তো যাবেন ঝর্ণা দেখতে। দেখতে পারেন খাসিয়া পল্লীতে গিয়ে খাসিয়াদের জীবন। খাসিয় পল্লীতে যাওয়ার জন্য নৌকায় মাথাপিছু ১০-২০ টাকা নেবে । ফেরার পথে শাহ পরানের মাজার ঘুরে আসতে পারবেন।বিকেলে ঘুরে আসতে পারেন শাহজালাল ( রহ:) এর মাজার|
দ্বিতীয় দিনঃ রাতারগুল, লালাখাল
রাতারগুল যাওয়ার জন্য সারাদিনের সিএনজি ভাড়া সারা দিনের জন্য , ভাড়া ১২০০-১৫০০ টাকা হওয়া হবে। কোথায় কোথায় যাবেন পরিষ্কার বলে নেবেন। চাইলে অন্য কোনো গাড়িও নিয়ে যেতে পারেন।
প্রথমে রাতারগুলা গিয়ে ঘাটে গিয়ে নৌকা ভাড়া করতে হবে। ভাড়া হবে ৫০০-৭০০ ঘুরে আসবেন রাতারগুল সোয়াম্প ফরেষ্ট । তারপর যাবেন লালাখাল  এখানেও ঘন্টা খানেক সময় কাটালে ভালো লালাখালে নৌকা ভাড়া করতে হবে, খরচ ৫০০-৭০০ টাকা । বেশী সময় নিলে সেদিন আর অন্য কোথাও যেতে পারবেন না।  সন্ধার আগে পরে সময় পেলে ঘুরে আসতে পারেন শহরের নিকটে লাকাতুয়া চা বাগান, মালিনীছড়া চা বাগান।

তৃতীয় দিনঃ  বিছানাকান্দী , পান্থুমাই, লক্ষনছড়া
সারাদিন  ঘোরার জন্য এর জন্য সিএনজি ভাড়া ১৫০০-১৭০০ টাকা। চাইলে গাড়ি নিতে পারেন।  সকালেই বের হবেন তাতে ঘোরার সময় পাবেন। ঘুরতে গিয়ে ঘুমিয়ে সময় কাটানোর মানে হয়না। বিছানাকান্দি যেতে ২ থেকে ৩ ঘন্টা সময় লেগে যায়।  হাদারপাড় নৌকা ঘাটে সিএনজি থেকে নেমে  ইঞ্জিন চালিত নৌকা ভাড়া করতে হবে, মাঝিকে বলে নিবেন সবগুলা লোকেশন এর কথা  যেমন বিছানাকান্দী , পান্থুমাই, লক্ষনছড়া, ভাড়া নিবে ১০০০-১২০০ টাকা। সময়ের সংকট থাকলে  পান্থুমাই বাদ দিতে পারেন, তাতে নৌকা ভাড়াও কমবে।  লক্ষনছড়ায় যেতে পারেন সেখানকার পানিতে কিছু সময় কাটালে ভালো লাগবে।
লাস্ট এ যাবেন বিছানাকান্দি যত আগে যেতে পারেন ততই ভালো।কারণ বেলা পাচ টার পর সেখানে থাকতে দেয়া হয়না , ভালো হয় তৃতীয় দিন বিছানাকান্দিতে যাওয়ার সময় আপনি হোটেল থেকে চেক আউট করে গেলে তা না হলে  হোটেলে দুইদিন এর ভাড়া দিতে হবে আর চাইলে সেদিনই ফিরতে পারবেন ঢাকায়।

কিভাবে যাবেন: সিলেট থেকে ঢাকা। ট্রেন ভাড়া শোভন ৩০০ টাকা, নন এসি বাস ভাড়া ৪০০-৪৫০ টাকা। ট্রেনে যাতায়াত করতে চাইলে আগেই টিকেট নিয়ে রাখবেন। অনলাইনেও টিকেট পাওয়া যায়। একটি ডেবিট বা ক্রেডিট কার্ডয দিয়ে ৪টি টিকেট নিতে পারবেন। বাসেও এইরকমই। তবে এসিবাসে একটু বেশী পড়বে।
কোথায় থাকবেন।
সিলেটে সব মানের হোটেল রয়েছে। মাজাররোডে সবচে বেশী হোটেল।

কোথায় খাবেন?
সিলেটে বেশকিছু ভালোমানের রেস্টুরেন্ট রয়েছে। তবে দা,ম একটু বেশী। জেনে নিয়ে অডার করবেন।

স্যুভেনির হিসেবে কি কিনবেন?

কোথাও ঘুরতে গেলে সেখানকার স্থানীয় পন্য কেনা ট্যুরিজম এর একটি অংশ। সিলেটে আপনি প্রথমত চা পাতা কিনতে পারেন। দ্বিতীয়ত কিনতে পারেন হাতকড়ার আঁচার। একটু তেতো কিন্তু হজমির জন্য ভালো। সিলেটের কমলা আনারসও খেতে পারেন যদি সিজনে যান।

মনে রাখবেন

যেকোনো ভ্রমণ যত আগে প্লান করবেন তত ভালো হবে। বন্ধুদের সাথে ঘুরতে গেলে আরো ভালো। কোনো ট্যুর কোম্পানী থেকে অফার করলে সেটা ধরে যেতে গেলে নিজের টেনশান নেই। কারণ হোটেল খাবার গাড়িভাড়া এসব নিয়ে দরদাম করতে হয়। এগুলো সব সময় একরকম থাকেনা। ভিড়ের সময় দাম বেড়ে যায়। তাছাড়া ঘোরার জন্য গাইডও প্রয়োজন হয়। আজকাল এসব কোম্পানী সার্ভিস চার্জ নিলেও ১০/২০ জন একসাথে যায় বলে খরচ বেশী পড়েনা, প্রচুর আনন্দ হয় আর নিরাপত্তা নিয়ে ভাবতে হয়না।

 

Published : ডিসেম্বর ১৪, ২০১৬ | 4588 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798