বাংলাদেশে চুরি হয় এমন ৫টি অবাককরা পন্য

Published : আগস্ট ৩০, ২০১৬ | 568 Views

অবাক বাংলাদেশ

বাংলাদেশে চুরি হয় এমন ৫টি অবাককরা পন্য

জাহাঙ্গীর আলম শোভন

আগের দুটি লেখায় আপনাদের সাথে শেয়ার করেছিলাম বাংলাদেশে বিক্রি হয় এবং বাংলাদেশে ভাড়ায় পাওয়া যায় এমন কিছু পন্য ও সেবার কথা। আজ আপনাদের সাথে শেয়ার করতে চাই। বাংলাদেশে চুরি হয়ে যায় কয়েকটি জিনিস। প্রিয় পাঠক এগুলো আমাদের নিত্যদিনের দেখার বিষয়বলে এগুলো আমাদের কাছে মজার মনে নাও হতে পারে। কিন্তু বৈশ্বিক বিবেচনায় এগুলো কেবল মজার নয় এগুলো অবাক করা বিষয়।

আসুন জেনে নিই বিষয়গুলো কিকি?

 

পুরনো জুতা চুরি:

হাঁ প্রিয় পাঠক বাংলাদেশে পুরনো জুতা চুরি হয়ে যায়। এবং সেটা ধর্মালয় বা মসজিদ থেকে। মসজিদে নিজের প্রিয় জুতাজোড়া হারাননি এমন কোনো খুঁজে পাওয়া কঠিন হবে। যেখানে চুরি বিদ্যাকে মহাপাপ হিসেবে শিক্ষা দেয়া হয় সেখানে এই অপকর্ম । ভেবে দেখলে বোঝা যায় কোন আজব দেশে বাস করছি আমরা।

পুরনো কাপড় ছোপড় চুরি:

প্রায় সময় শোনা যায় বাইরে কাপড় ছোপড় শুকাতে দেয়ার পর সেটা চুরি হয়ে গেছে। এ ধরনের ক্ষেত্রে ভিক্ষুক বা টোকাইদেরকে সন্দেহ করা হয়। অনেকসময় টোকাই শিশুদের সন্দেহের বশে ভয়ানক নির্যাতন করা হয়। এ ধরনের কর্মকান্ড যেমন অভাব ও দারিদ্রতার কারণে হয় তেমনি হয় মাদকাসক্তি ও মানষিক সমস্যার কারণে।

পুরনো বই পত্র:

বই চুরি হয় অনেকে দেশেই। আমাদের দেশেও হয়। লাইব্রেরী থেকে বই চুরি করা। বই কেটে নিয়ে যাওয়া এগুলো শিক্ষিত লোকদের পছন্দের পন্য। তারাই এগুলো চুরি করে। এখানে মূল্যবোধ ও মানষিকতার সমস্যা। আমরা দেশে উন্নতির জন্য কাজ করি বা কথা বলা। শুধু আর্থ সামাজিক উন্নয়ন নয় মনস্তাত্বিক ও চিন্তাগত উন্নয়ন না হলে জাতির আগামী দিনের উন্নয়ন ফলপ্রসু হওয়ার সুযোগ খুব কম।

শিশুচুরি

অনেকে কখনো দেখেন যে শিশু চুরি হয়। ছোটবেলায়ে একা একা বের হতে খুব ভয় পেতাম। গুজব ছিলো যে ছেলেধরা এসে নিয়ে যাবে। অথবা কল্লাকাটা যারা শিশুদের একলা পেলে মাথা কেটে নিয়ে যায়। সেই মাথা দিয়ে বড়ো বড়ো ব্রিজ নির্মানের সময় ‍খারাপ আত্মাদের ভোগ দিয়ে তাড়ানো হয়। এসব গল্প শুনে ভয়ে হিম হয়ে যেতাম।

বড়ো হয়ে দেখলাম যে, মাথা কেটে নিয়ে না গেলেও শিশু চুরি হয়। চুরি হয় অপরণের জন্য। চুরি হয় শিশুকে হত্যা করে শত্রুতা উদ্ধার করার জন্য, চুরি হয় নি:সন্তান দম্পতিরা মা বাবা হওয়ার জন্য, চুরি হয়, শিশুদেরকে চুরি করে নিয়ে পরে ভিক্ষুক, হিজরা, উটের জকি বানানোর জন্য। হায়রে দেশ।

ফাইলপত্র চুরি:

প্রায় সময় শোনা যায় ওমুক মামলার ফাইল গায়েব। ওমুক চুরির তথ্য হারিয়ে গেছে। দুষ্কৃতিকারীরা তাদের অপকর্মের প্রমাণ গায়েব করার জন্য এমনটা করে। আর সরকারী অফিসের পিয়ন, দালাল অথবা অন্যকেউ তাদের হয়ে এই কাজটা করে। আজব দেশ আর কাকে বলে।

নচিকেতার ভাষায় বলতে গেলে বলতে হয়। প্রতিদিন চুরি যায় প্রতিবোদের ভাষা। আমাদের চেতনা ও মূল্যবোধও হয়তোরা কখনো কখনো চুরি হয়।

Published : আগস্ট ৩০, ২০১৬ | 568 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798