বুক রিভিউ: ট্যুর গাইড হতে হলে

Published : আগস্ট ১৩, ২০১৬ | 2704 Views

বিদেশী ট্যুরিস্টদের গাইড করবেন কিভাবে?

বই: ট্যুর গাইড হতে হলে
লেখক: তৌফিক রহমান
প্রকাশক: আনোয়ার ফরিদি, ম্যাগনাম ওপাস
প্রচ্ছদ: মুজিব রহমান
মূল্য: ২০০ টাকা

ট্যুর গাইড ও অপারেটরদের জন্য পূর্ণাঙ্গ গাইড লাইন

ক্রমবিকাশমান আমাদের পর্যটন খাত। তথ্যপ্রযুক্তির কল্যানে যেমন আমাদের দেশের প্রাকৃতিক সৌন্দর্য বিশ্বময় ছড়িয়ে পড়ছে। তেমনি ভ্রমনপ্রিয় মানুষের আগ্রহও দিন দিন বাড়ছে। কিন্তু পর্যটন সংক্রান্ত নানা সুযোগ সুবিধা ও জ্ঞানের অভাবে আমরা এই সুযোগটাকে কাজে লাগাতে পারছিনা। আমাদের দেশে বাংলা ভাষায় অসংখ্য ভ্রমন সাহিত্য রয়েছে। পর্যটন তথ্যও কিছু পাওয়া যায়। কিন্তু ট্যুরিস্টদের নানারকম সেবা সঠিকভাবে দেয়ার জন্য একজন গাইডের কি পরিমাণ জ্ঞান থাকা প্রয়োজন তার ঘাটতি রয়েছে। বিশেষ করে প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার বাইরে পর্যটন সম্পর্কে জানার সুযোগ খুবই সীমিত।
‘‘ট্যুর গাইড হতে হলে’’ তৌফিক রহমানের লেখা এই বইটি সে অভাব অনেকখানি পূরণ করবে। তৌফিক রহমান বাংলাদেশের ট্যুরিজম ইন্ডাস্ট্রির একটি অতি পরিচিত নাম। তার প্রতিষ্ঠান জার্নি প্লাস দীর্ঘদিন ধরে বিদেশী ট্যুরিস্টদের নানা ধরনের সেবা দিয়ে দেশের পক্ষে কাজ করে আসছেন। তিনি একজন প্রশিক্ষক হিসেবে টূরিজম ইনস্টিটিউট, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও ট্যুরিস্ট পুলিশকে প্রশিক্ষন দিয়ে আসছিলেন। পেশাগত ও একাডেমিক দিক থেকেও তার রয়েছে ট্যুরিজম এর উপর পড়াশোনা। তিনি শ্রীলংকা, হংকং, আমেরিকা, বেলজিয়াম প্রভৃতি দেশ থেকে ট্যুরিজম বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি ও স্কলারশীপ নিয়ে শিক্ষা জীবন শেষ করেছেন। তার লব্ধ জ্ঞান থেকে পর্যটন খাত সরাসরি উপকৃত হয়ে আসছিলো। এবার ‘‘ট্যুর গাইড হতে হলে’’ এই বইয়ের মাধ্যমে নতুনদের কাজের ব্যাপারে শেখার একটা সহজ সুযোগ হলো।
বইতে ৩০টি অধ্যায় রয়েছে। এর মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ আসলে সবকিছু্। তবুও কয়েকটা উল্লেখ করতে গেলে বলতে হয়, ট্যুরিজম এর শেণীবিন্যাস, পরিভাষা, পর্যটন ও পরিবেশ, একটি ট্যুরের প্রস্তুতি, পর্যটকদের স্বাগত জানানো, হোটেল প্রসঙ্গ, সাইটসিয়িং, পর্যটকের সাথে সাক্ষাৎ, ব্যক্তিগত পরিষ্কার পরিছ্ছন্নতা, পর্যটকের সাথে যোগোযোগ, দলবদদ্ধ ভ্রমেন নেতৃত্বে দেয়া, প্রশ্নের উত্তর দেয়া, অভিযোগ সামলানো, ট্যুর কোড অব কন্ডাক্ট, পর্যটকের নিরাপত্তা, জরুরী অবস্থার মোকাবিলা, পর্যটকদের বিদায় দেয়া ইত্যকার সব প্রয়োজনীয় বিষয় রয়েছে এই বইতে।
বাংলাভাষায় লিখা ১৩০ পৃষ্টার চমৎকার এই বইটিতে প্রতিটি বিষয়খে পয়েন্ট টু পয়েন্ট এবং সাবহেড দিয়ে পরিষ্কার সহজ ও প্রাঞ্জল ভাষায় লেখা হয়েছে। বাংলা ভাষায় লেখা হলোও প্রায় সবগুলো বিষয়ে প্রয়োজনীয় ইংরেজী পরিভাষা ও শব্দ জুড়ে দেয়া হয়েছে সঠিক বানান সহ। ফলে সকলের বুঝতে সহজ হবে। বিভিন্ন ডায়াগ্রাম ও টেবলের মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে বিষয়গুলো। রয়েছে দেশের পর্যটন সংক্রান্ত বেশ কিছু তথ্য। বিভিন্ন দেশের ভাষা শেখার জন্য কোথায় যেতে হবে, ফোন নাম্বার সহ রয়েছে তার বিস্তারিত নির্দেশনা। একজন ট্যুর গাইডকে কি কি জ্ঞান ও কৌশল জানতে হবে রয়েছে তার বিবরণ। কিভাবে স্পট এর ধারা বর্ণণা দেবেন। ট্যুরিস্ট এর কাছে কিভাবে নিজের ও নিজের দেশকে তুলে ধরতে হবে রয়েছে তার গাইড লাইন।
প্রতিটি বিষয়ে রয়েছে একাডেমিক ডিসকাশন ও বাস্তব অভিজ্ঞতার আলোকে সাজানো। অহেতুক কথা না বাড়িয়ে মূল বিষয়টাকে ফোকাস করে গোছানো আলোচনা রয়েছে বইটিতে। বইটি শুধু পেশাদার ট্যুর অপারেটর কাজে লাগবে তা নয়। বিশেষভাবে কাজে লাগবে হোটেল এন্ড ট্যুরিজম নিয়ে যারা লেখাপড়া করছেন তাদের। এছাড়া বিভিন্ন ট্যুর অপারেটর, ট্যুর অপারেটিং এ চাকরি করেন এমন পেশাজীবি, এবং হোটেল ম্যানেজারসহ যারা ট্যুরিস্টদের সাথে কাজ করেন সবার কাজে লাগবে।
বইটি নিয়ে মন্তব্য রয়েছে ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউট সভাপতি রামেন্দু মজুমদারের, মন্তব্য করেছেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্যুরিজম বিভাগের অধ্যাপক ড. সৈয়দ রাশিদুল হাসান, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি জনাব মুফিদুল হক, টোয়াব এর প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি জনাব হাসান মনসুর ও পাটা বাংলাদেশ চ্যাম্প্টার এর চেয়ারম্যান জনাব শাহিদ হামিদ। প্রত্যেকেই বইটির গুণগত মান ও এর বিষয়বস্তু নিয়ে প্রশংসা করেছেন। বাদবকীটা বইয়ের পাতায় দেখুন।
এ ধরনের একটি পুস্তক প্রকাশনার জন্য লেখক এবং প্রকাশক দুজনেই ধন্যবাদ পাপ্য। ভবিষ্যতে এধরনের আরো প্রকাশনা প্রকাশ এবং সাধারণ ছাত্রছাত্রীদের কাছে পৌছে দেয়ার ব্যবস্থা করলে সবাই উপকৃত হবে।
জাহাঙ্গীর আলম শোভন
পায়ে হেঁটে তেঁতুলিয়া থেকে টেকনাফ ভ্রমনকারী

Published : আগস্ট ১৩, ২০১৬ | 2704 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798