চাকরির সাক্ষাৎকার: ৫টি কমন ও গুরুত্বপূর্ণপ্রশ্ন

Published : আগস্ট ১২, ২০১৬ | 2456 Views

writing-reviews

 

চাকরির সাক্ষাৎকার: ৫টি কমন ও গুরুত্বপূর্ণপ্রশ্ন

চাকরীর ইন্টারভিউতে কিছু কমন প্রশ্ন থাকে যেগুলো প্রায় সব ইন্টারভিউতে করা হয়ে থাকে? কিন্তু আমরা মনে করি। যে এগুলোতো সবাই জানে। একটা কিছু বলা যাবে। ব্যাস সেগুলো বাদ দিয়ে আমরা কেবল এ+বি এর সূত্র শিখতে ব্যস্ত হয়ে পড়ি।
আসুন কয়েকটি কমন প্রশ্ন ও সেগুলোর উত্তর দেয়ার কৌশল জেনে নিই।

প্রশ্ন ১: আপনিতো নতুন, আপনার কাজের কোনো অভিজ্ঞতা নেই।
এই প্রশ্নের উত্তরে পন্ডিতি দেখিয়ে আপনি বলতেই পারেন। স্যার চাকরী না দিলে কিভাবে অভিজ্ঞতা হবে? তারচেয়ে বরং ইতিবাচকভাবে বলুন। জি স্যার, আমি ফ্রেশার, আপনার কোম্পানী প্রতিষ্ঠিত এখানে ফ্রেসারদের কাজ করার সুযোগ আছে, এবং কাজের মাধ্যমে শেখার সুযোগ আছে বলেই, আমি এপ্লাই করেছি। এরপরও একটা বাক্য অন্তত বলার চেষ্টা করুন। যেমন ধরুন স্যার ফ্রেশার হলেও আমি অফিসিয়াল অনেক কাজ করা শিখেছি। যেমন, …. এরকম কয়েকটা বলুন। আপনি অন্যফ্রেশারদের চেয়ে এগিয়ে থাকবেন আশা করা যায়। সেজন্য অবশ্যই আগেই কিছু শিখে রাখুন।

প্রশ্ন ২: আপনার নিজের সম্পর্কে বলুন?
আপনার এডুকেশন সম্পর্কে বলুন প্রথমে। কোথাও লেখা পড়া করেছেন। কোন সাবজেক্ট। আপনার কোনো ভালো রেজাল্ট থাকলে সেটা বলুন। ডিবেটিং বা সংগঠন বা ব্লাড ডোনেশান ক্লাব এসবের সাথে যুক্ত থাকলে বলুন। এবার এক বা দুই কথায় বলুন পরিবার সম্পর্কে। কয়ভাইবোন, বাবা কি করেন? পরিবার কোথায় থাকে। ব্যস। এবার চলে আসুন কর্মময় জীবনে। কোথায় কাজ করেছেন। বড়ো এচিভমেন্ট কি? এগুলো ২ থেকে ৩ মিনিটের মধ্যে শেষ করুন।

প্রশ্ন: ৩: আমাদের কোম্পানীকে বেচে নিলেন কেন?
এই প্রশ্নের গতানুগতিক উত্তর নিয়োগকর্তা আশা করেন না। এজন্য আপনাকে অবশ্যই কোম্পানী সম্পর্কে হোমওয়ার্ক করতে হবে। এবং কোম্পানী ইতিবাচক দিক গুলো তুলে ধরতে হবে। যেমন এই কোম্পানী সম্পর্কে বাজার যথেষ্ঠ সুনাম রয়েছে। আপনারা সমাজের জন্য অনেক কাজ করেন এটা আমার ভালো লেগেছে। বা এই কোম্পানীতে ভবিষ্যতে ভালো করার সুযোগ আছে বলে শুনেছি। বা আপনার যে পন্য সেল করেন এটা সরাসরি মানুষের ব্যবহারের জন্য লাগে। এ বিষয়টা আমার কাছে ভালো লেগেছে। স্যালারিতো আসলে সব ফার্মেই পাবো।

প্রশ্ন ৪: আপনি কতটাকা স্যালারি আশা করেন?
এই প্রশ্নের উত্তরে কখনোই টাকার অংক বলার চেষ্টা করবেন না। এটা খুব সিলি দেখাবে আপনি অবশ্যই নিয়োগকর্তাদের কাছ থেকে শুনতে চাইবেন। যদি বলতেই হয়। তাহলে কখনো একটি অংক বলতে যাবেন না। তাহলে মনে হবে আপনি শুধু টাকার জন্য কাজ করছেন। একটি সাজিয়ে অন্যভাবে বলার চেষ্টা করাই ভালো। আপনি বলতে পারেন। আগে এত পেতাম এখন আরেকটু বেশী চাই। বা আসলে মাসে এত টাকা খরচ আছে। আমাদের দেশে এভাবে চলে। সবচে ভালো হলো নিয়োগকর্তার কাছ থেকে শুনতে পারা।

প্রশ্ন:৫ : ৫ বছর পর নিজেকে কোথাও দেখতে চান?
আপনি হয়তো বলতে পারেন ৫ বছর পর আমি এই কোম্পানীর সিইও হতে চাই। কিন্তু এটা আপনার কাছে চমকপ্রদ হতে পারে। কিন্তু নিয়োগকর্তার কাছে নয়। আপনি বলতে পারেন। ৫ বছর পর আমি কোম্পানীকে দেখতে চাই দেশের শীর্ষ ২,৪ বা ১০ কোম্পানীর মধ্যে একটিতে। কোম্পানীকে যদি উপরে তুলতে পারি। আমি অবশ্যই নিজের জায়গাটা করে নিতে পারবো।
শুধু প্রশ্নের উত্তর বড়ো কথা নয়। আপনি ইতিবাচক মানসিকতার প্রশান দেবেন। আপনার মুখশ্রী বা এটিচিউড দেখে যেন মনে হয় আপনি কনফিডেন্ট। খুব জড়োসড়ো হয়ে বসবেন না। আবার অতিচালাকি দেখাবেন না। হাসিমুখে উত্তর দেয়ার চেষ্টা করবেন। কোনো প্রশ্নের জবাব না জানলে সবিনয়ে না জানার কথা বলুন।

লিখেছেন: জাহাঙ্গীর আলম শোভন

Published : আগস্ট ১২, ২০১৬ | 2456 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798