মহারাষ্ট্রে হচ্ছে ভারতের প্রথম বই-গ্রাম

Published : মে ৭, ২০১৭ | 1059 Views

 মহারাষ্ট্রে হচ্ছে ভারতের প্রথম বই-গ্রাম

প্রতিবেদক: ব্রিটেনের হে-অন-ওয়াই এর অনুকরনে মহারাষ্ট্রের সাতারা জেলার একটি ছোট্ট গ্রাম লোকে বলে ভিলার গ্রাম। সুস্বাদু স্ট্রবেরির চাষের জন্যেই এতদিন ভারতজুড়ে খ্যাতি ছিলো গ্রামের।  এবার এই গ্রামের নাম হবে বই গ্রাম। গ্রাম জুড়ে বিভিন্ন স্পটে থাকছে বই ও পাঠাগার।গ্রামের ভিতরে পাওয়া যাবে মারাঠিতে লেখা প্রায় ১৫ হাজার বই। এই উদ্যোগের নাম দেওয়া হয়েছে ‘পুস্তাকাঞ্চে গাঁও’।

বই প্রেমী যেকেউ এখানে বসে তাঁর পছন্দের বই যতক্ষণ ইচ্ছে পড়তে পারেন। পড়া শেষে আবার রেখে যেতে হবে যথাস্থানে।পঞ্চগনিতে আসা পর্যটকদের কথা মাথায় রেখে গরমের ছুটিতে এই গ্রামে সাহিত্য উৎসব আয়োজন করার কথাও ভাবছে রাজ্য সরকার। যাতে একটি সময় প্রচুর পর্যটক আসে এবং ব্যাপক প্রমোশন হয়।

নানান দেশের নানান ভাষার বই। গ্রামে থাকবেন ঘুরবেন আর দেখবেন সাথে বই পড়বেন যত খুশি। যারা প্রাকৃতিক পরিবেশে লেখাপড়া কিংবা বই পড়তে চান তাদের হাতছানি দিয়ে ডাকবে ভিলার গ্রাম। বই পড়ার অভিজ্ঞতাকে আরও সুন্দর করে তুলতে একদিকে যেমন নজর দেওয়া হয়েছে সাজসজ্জার দিকে তেমনই ব্যবস্থা রয়েছে চেয়ার, টেবল, ডেকরেটেড ছাতা এবং বইয়ের কাচের আলমারির।

পঞ্চগনি শহরের অদূরেই রয়েছে এই শান্ত ছোট্ট মারাঠি গ্রামটি ভিলার। ৪ মে, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবিশ রাজ্য সরকারের এই উদ্যোগের শুভসূচনা করেছেন। রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী বিনোদ তাওয়াডের অনুপ্রেরণায় মারাঠি ভাষা দপ্তরের এই অভিনব পদক্ষেপ।  গ্রামের বিভিন্ন অংশে মোট ২৫ জায়গায় সুসজ্জিত রিডার হটস্পট তৈরি করা হয়েছে। এই সব বুক কর্নারে থাকবে বিস্তৃত বইয়ের সম্ভার। থাকবে সাহিত্য, কবিতা, ধর্ম, নারী ও শিশু সাহিত্য, ইতিহাস, পরিবেশ, লোক সাহিত্য, জীবনী, আত্মজীবনীর বিশাল সম্ভার।

কমুউনিটি ট্যুরিজম ধারনাটা যতই জনপ্রিয় হচ্ছে বিভিন্ন দেশে গ্রামীন ট্যুরিজমের কথা মাথায় রেখে লোকেরা তাদের গ্রামকে অন্য দশটি গ্রামের চেয়ে আলাদা করে নিচ্ছে। এতে করে ট্যুরিস্ট আকর্ষন করা সহজ হয়। পর্যটকদেরকে সেখানে বেড়ানোর একটা রিজন দেয়া যায়। এভাবে আমাদের দেশেও হতে পারে। পিঠার গ্রাম যে গ্রামে সবাই ট্যুরিস্টদের বিভিন্ন রকমের পিঠা বানিয়ে খাওয়াবে, হতে মুরি গ্রাম যেখানে সবাই মুড়ি ভাঝে, আছে টুপি গ্রাম, গোলাপ গ্রাম আছে ক্রিকেট ব্যাট গ্রাম। এভাবে ভিন্ন  ভিন্ন ভাবে ভিন্ন গ্রামকে তুলে ধরতে পারলে আমরা পর্যটনে নতুন বার্তা দিতে পারবো।
সূত্র: এই সময়।

Published : মে ৭, ২০১৭ | 1059 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798