তেঁতুলিয়ার চা বাগান থেকে ঘুরে আসুন শীত আসার আগে

Published : অক্টোবর ৩১, ২০১৬ | 1601 Views

তেঁতুলিয়ার চা বাগান থেকে ঘুরে আসুন শীত আসার আগে

জাহাঙ্গীর আলম শোভন

 

চা বাগান শুধু সিলেটে নয় পঞ্চগড়েও আছে। তেঁতুলিয়ায় সমতলভূমির চা বাগান এখন দেখার মতো। তেঁতুলিয়ায় দেখতে যেতে পারেন চা বাগান, বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট, তেঁতুলিয়া মুক্তাঞ্চল, মহানন্দী নদী সব মিলিয়ে তেঁতুলিয়া করতে পারেন একটা ট্যুর প্লান। শীতে উত্তরবঙ্গে থাকে হাড়কাপানো শীত। তাই শীত আসার আগেই ঘুরে আসুন তেঁতুলিয়া থেকে।

তেঁতুলিয়ার চা বাগান: ভারতের শিলিগুড়ি ও জলপাইগুড়ির প্রভাবে এখানে গড়ে উঠেছে বেশকিছু চা বাগান। সমতল ভূমির এসব চা বাগান আপনার নয়ন জুড়াবে। এখানে চা খেতেও বেশ স্বাদ। কারণ এখানকার পানি বেশ সুস্বাদু আর সর্বত্র পাওয়া যায় গরুর দুধের চা।

বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট: হ্যাঁ বাংলাদেশের শেষ সীমানা বাংলাবান্ধা জিরো পয়েন্ট এখানে এসে দেখতে পারেন কোথায় শেষ হয়েছে দেশ। এখান থেবকে দেখা যায় ভারতের পাহাড়গুলো। একটি মস্তবড়ো জিরোর সাথে সেলফি তোলার লোভ থাকলে আসতে পারেন এখানে।

তেঁতুলিয়া মুক্তাঞ্ছল: ভজনপুর থেকে শুরু করে বাংলাবান্ধা পর্যন্ত পুরো এলাকা ১৯৭১ সালের মুক্তিযুদ্ধের সময় পুরোপুরি স্বাধীন ছিলো এখানে প্রবেশ করতেই পারেনি হানাদার বাহিনী। এখানে মুক্তিযোদ্ধোদের ট্রেনিং ও চিকিৎসা চলতো। এখানে নানাদেশ থেকে বিখ্যাত সাংবাদিকরাও এসেছিলেন।

মহানন্দী নদী: এই নদী দেখলে আপনার মনে পড়ে যাবে রবী ঠাকুরের ছোটনদী কবিতাটি। তবুও এর একটা সৌন্দর্য আছে। নদী থেকে গামছায় ছেঁকে লোকেরা ছোট মাছ নয় তুলছে পাথর। মহানন্দা নদীর সূর্যাস্ত ভাবুক মনে দোলা দিতে পারে।

ঢাকা থেকে পঞ্চগড়গামী নাবিল পরিবহন, হানিফ, কেয়া, শ্যামলীতে উঠে চলে যাবেন পঞ্চগড়ে।েএখান থেকে লোকাল বাসে যেতে হবে তেঁতুলিয়া সেখান থেকে ভ্যান বা অটোতে যেতে হবে বাংলাবান্ধা। এখানে বেশকিছু হোটেল রয়েছে থাকা খাওয়া নিয়ে মোটেই ভাবতে হবেনা। চা বাগান পেয়ে যাবেন তেঁতুলিয়া যাবার আগেই। আর পাবেন মুক্তাঞ্ছল এর ফটক। মহানন্দা নদী দেখতে হবে তেঁতুলিয়া ডাকবাংলার পাশে। এখানে আরো একটি ডাকবাংলো আছে স্মৃতিস্বরুপ যেটা নির্মান করেছেন কুচবিহারের রাজা। আর দেখতে পাবেন সেই হাসপাতাল যেটাতে মুক্তিযুদ্ধকালীন মুক্তি যোদ্ধাদের চিকিৎসা হতো।

শুধুমাত্র জিরোপয়েন্ট দেখার জন্য যেতে হতে পারে শেষপ্রান্ত অবধি।

থাকার জন্য পঞ্চগড়ে বেশকিছু হোটেল রয়েছে। তেঁতুলিয়ায় আছে সুন্দর একটি পরিপাটি ডাকবাংলো। আছে হোটেল সীমান্ত ও হোটেল দতসি। এমনকি বাংলাবান্ধায়ও আছে দুই কামরার একটি সরকারী বাংলো।

চাইলে অর্ধেক রাস্তা  মানে সৈয়দপুর পর্যন্ত যেতে পারেন বিমানে। বিমানের টিকেট কাটুন, www.cholbe.com

Published : অক্টোবর ৩১, ২০১৬ | 1601 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798