অনলাইন ব্যাংকিং ও এর সুবিধা অসুবিধা

Published : অক্টোবর ১০, ২০১৬ | 4212 Views

অনলাইন ব্যাংকিং ও এর সুবিধা অসুবিধা

অনলাইন ব্যাংকিং বর্তমানে প্রতিস্ঠিত ব্যাংকিং ব্যবস্থা। এর নানাবিধ সুবিধার কারণে দিন দিন এর জনপ্রিয়তা ও ব্যবহার বেড়ে চলছে।  আজকাল সব ব্যাংকেই অনলঅইন ব্যাংকিং এর আওতায় চলে এসেছে। ইন্টারনেটের মাধ্যমে যে  ব্যাংকিং কার্যক্রম, তাকে ইন্টারনেট ব্যাংকিং বা অনলাইন ব্যাংকিং বলে। এক্ষেত্রে অনলঅইনে এ যুক্ত হয়ে ব্যাংকের নির্দিষ্ট সুরক্ষিত পোর্টাল এর মাধ্যমে একজন গ্রাহক তার পছন্দের ব্যাংকের নেটওয়ার্ক ব্যবহার করে একাউন্টে প্রবেশ করে। এভাবেই অনলাইন ব্যাংকিং হয়ে থাকে।

অনলাইন ব্যাংকিং এমন একটি আর্থিক প্রক্রিয়াবে বোঝায় যেখানে কম্পিউটার সিস্টেম এর মাধ্যমে অনেকগুলো আন্তঃসংযোগকৃত কম্পিউটার নেটওয়ার্ক প্রয়োজনীয় কার্যাবলী সম্পাদন করে। সহজ কথায় ইন্টারনেট বা অন্তজাল। অনলাইন ব্যাংকিং এর প্রধান উপাদান নিরবিচ্ছিন্ন কম্পিউটার নেটওয়ার্ক। কোন ব্যাংক শাখার অনেকগুলো কম্পিউটার ল্যান এর মাধ্যমে একটি আরেকটির সাথে সংযুক্ত থাকে। আবার একটি ব্যাংকের প্রধান কার্যালয় এবং এর শাখাগুলোর ল্যান এর মধ্যে বেতার তরঙ্গ, অপটিক্যাল ফাইবার বা অন্য কোন মাধ্যমের সাহায্যে গোটা দেশের মধ্যে সমস্ত কম্পিউটার গুলোর সাথে আন্তঃসংযোগ হতে পারে। ব্যাংকে অনলাইনের মাধ্যমে বিদ্যমান এই গোটা ব্যবস্থাটিকে ব্যাপক অর্থে অনলাইন ব্যাংকিং বলা হয়।  ব্যাংকে ল্যান এবং ওয়ান এর সাহায্যে যে সমস্ত ব্যাংকিং সেবা প্রদান করা হয় তাকে অনলাইন ব্যাংকিং বলে। অনলাইন ব্যাংকিং এর এমন কতগুলো উদাহরণ হচ্ছে- এটিএম, অটোমেটেড ফান্ড ট্রান্সফার, ই-চেক, ইলেকট্রনিক মানি ইত্যাদি। কম্পিউটার ও নেটওয়ার্ক এর সমন্বয়ে ‍অনলাইন ব্যাংকিং।

 

সুবিধা:

ক) চব্বিশ ঘন্টা অর্থাৎ যে কোন সময়ে ব্যাংকিং করা যায়।

খ) স্বল্প সময়ে যেকোন স্থানে অর্থ প্রেরণ করা সম্ভব।

গ)  লেনদেণ ছাড়াও নানারকম তথ্য যেকোনো স্থান থেকে পাওয়া যায়।

ঘ) ইলেকট্রনিক ফান্ড ও ইলেকট্রনিক মানি ব্যবহারের ফলে গ্রাহকের ব্যবসায়িক লেনদেন দিন দিন সহজ হয়।

ঙ) অনলাইন ব্যাংকিং চালুর ফলে গ্রাহকের অযথা হয়রানি বন্ধ হয় সেবা উন্নত হয়।

 

অসুবিধা:

ক) যেহেতু এটি অত্যাধুনিক প্রযুক্তি সম্বলিত একটি ব্যবস্থা তাই এর সংস্থাপন ও রক্ষণাবেক্ষণ খরচও অনেক বেশি

খ) এই অত্যাধুনিক প্রযুক্তি পরিচালনার জন্য অত্যন্ত আইটিতে দক্ষ কর্মীর সাহায্য প্রয়োজন হবে।

গ) অনলাইন ব্যাংকিং নেটওয়ার্ক ইন্টারনেট নির্ভরশীল তাই হ্যাকারদের আক্রমনের আশংকা থাকে। এতে বড়ো ধরনের বিপর্যয়ের সম্ভাবনা থাকে।

ঘ) প্রাকৃতিক দূর্যোগ বা কোনো দূর্ঘটনার কারনে নেটওয়ার্ক সমস্যা দেখা দিলে লেনদেন বিগ্নিত হতে পারে।

ঙ) গ্রাহকরা যদি অনলাইন ব্যাংকিং না বোঝে তাহলে নানা জটিলতায় পড়তে হয়।

সার্বিকভাবে অনলাইন ব্যাংকিং জনপ্রিয়, কার্যকর ও প্রভাবশালী পদ্ধতি। ফলে দিন দিন এটা জনপ্রিয় হয়ে উঠবে। বিশ্বজুড়ে মাল্টিন্যাশনাল কোম্পানীগুলো দিনে দিনে অনলাইন ব্যাংকিং ব্যবস্থাকে উন্নত করে তুলছে। একসময় ব্যাংকিং বলতে অনলাইন ব্যাংকিংকেই বোঝাবে। প্রথাগত ব্যাংকিং এর কার্যত বিলুপ্তি ঘটতে চলেছে।

জাহাঙ্গীর আলম শোভন

Published : অক্টোবর ১০, ২০১৬ | 4212 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798