চার ডিজিটের শর্টকোড সেবা নিয়ে এলো ওয়ালেটমিক্স

Published : আগস্ট ৮, ২০১৬ | 1731 Views

শর্টকোড সেবা সহজ ও সুন্দর

ফোর ডিজিট শর্টকোড সেবা নিয়ে এলো ওয়ালেটমিক্স লিমিটেড

ওয়ালেটমিক্স স্পেশাল:

 ফোন ও এসএমএস সংক্রান্ত বিভিন্ন সেবায় শর্টকোড জনপ্রিয় হয়ে উঠছে ক্রমশ। এবং দিন দিন শর্টকোডের ব্যবহার বেড়ে চলেছে। এর মধ্যে বিটিআরসি থেকে ৫ ডিজিটের শর্টকোড সেবা দিয়ে ফোন কল এর জন্য যেমনি জনপ্রিয়। তেমনি মোবাইল অপারেটর থেকে কনটেন্ট প্রোভাইডার হিসেবে চার ডিজিটের শর্টকোড সেবা এসএমএস ইনডাইরেক্ট মার্কেটিং এর জন্য বেশ উপযোগী।

আসুন জেনে নিই। চার ডিজিটের এই শর্টকোড থেকে কিকি সার্ভিস নেয়া নেয়া যায়?

এসএমএস মাধ্যমে রেজিস্ট্রেশন:
আপনার ওয়েবে সাইটে রেজিস্ট্রেশন ফরম্যাটের সাথে এপিআই সংযুক্ত করে এই সেবা চালু করতে পারেন। কখনো যদি মনে হয় আপনার জন্য দূর দূরান্ত থেকে অনেক মানুষের রেজিস্ট্রেশন সম্ভব হবে না। তখন আপনি এই সেবা নিতে পারেন। এতে গ্রাহক ১৬০ ডিজিটের মাধ্যমে মেসেজ পাঠাতে পারে এবং পরে একটি ফিরতি মেসেজও পেতে পারে। এতে রেজিস্ট্রেশন নাম্বার ও সিরিয়াল মেনটেইন করা যায়।

ভোটিং:
ক্লোজআপ ওয়ানের ভোটের কথা আপনারা সবাই জানেন। চার ডিজিটের একটি শর্টকোডের মাধ্যমে আপনি ভোটিং সার্ভিস নিতে পারেন। এক্ষেত্রে আপনার একটা কি ওয়ার্ড থাকবে, এবং ভোটিং এর জন্য থাকবে নির্বাচিত লেটার বা ওয়ার্ড। কয়েকটি নির্দিষ্ট অপশন থেকে আপনার ভোটাগণ কি ওয়ার্য দিয়ে তারপর তার ভোট প্রদান করবে নির্দিষ্ট লেটার টাইপ করে ৯৯৩৪ নাম্বারে পাঠানোর মাধ্যমে। যেমন কি ওয়ার্ড এর পর ABCD অথবা Y for Yes or N for N, এভাবে ভোটিং সম্পন্ন করা যায়।

কুইজ কনটেস্ট কম্পিটিশন:
যেকোনো কুইজ আপনি ঘোষণা দিয়ে তার উত্তর মোবাইল মেসেজ এর মাধ্যমে গ্রহণ করতে পারেন। এতে করে আপনার প্রমোশনও হতে পারে। সবচেয়ে বড়ো কথা এই সার্ভিস ব্যবহার করার জন্য বেশীরভাগ ক্ষেত্রে কোনো খরচ লাগে না। প্রমোশনটাই আসল। মানে আপনার সার্ভিসটি সম্পর্কে কাস্টমারকে জানানোর জন্য প্রমোশনাল প্রজেক্ট নিতে হয়। এজন্য খরচটা মূলত মেসেজ প্রেরণকারীর ফোন থেকে টাকা কেটে নেয়া হয়।

পরীক্ষার ফলাফল:
পরীক্ষার ফলাফলের মোবাইল সার্চিং এর সাথে আমরা সবাই পরিচিতি। আমরা জানি যে মোবাইলের মাধ্যমে পরীক্ষার ফল জানা যায়। বোর্ড পরীক্ষার পাশাপাশি আমরা কোনো শর্টকোড সার্ভিস প্রোভাইডার এর সাহায্য নিয়ে নিজেরাও নিজেদের শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে এ ধরনের সেবা নিতে পারি। বিশেষ করে কলেজ বিশ্ববিদ্যালয় ও স্কুলে ভর্তি পরীক্ষার জন্যে এটা বেশ উপযোগী। পরীক্ষার ফলাফল এসএমএস এর মাধ্যমে গ্রহণ একটি জনপ্রিয় পদ্ধতি। এটা এমন নয়যে শুধু মাত্র বোর্ড পরীক্ষার ক্ষেত্রে হতে পারে। এটা অন্য যেকোনো পরীক্ষার ক্ষেত্রেও হতে পারে। তবে বড়ো ভুলিউম না হলে এই কাজ সিপিরা করতে চায়না। আর যখন করবে তখন ডাটা এন্ট্রির জন্য আলাদা ফি চাওয়া স্বাভাবিক।

ডাটাবেজ তৈরী:
আপনি কোনো নির্দিষ্ট গ্রুপকে টার্গেট করে প্রমোশন চালাতে পারেন। প্রমোশন প্রতিযোগিতামূলক হতে পারে, তথ্যভিত্তিকও হতে পারে, হেতেপারে কোনো অফার কেন্দ্রীক। আপনার অফারের ব্যাপারে আগ্রহীগণ এসএমএস পাঠাবে। এতে আপনার তৈরী হয়ে যাবে আগ্রহী লোকদের একটি ডেটাবেজ।

যেমন ধরি, আপনার শর্টকোড ৯৯৩৩ এখন যে কেউ এ নাম্বারে নাম, বয়স, জেলা, রক্তের গ্রুপ লিখে পাঠালে তার নাম একজন ডোনার হিসেবে নিবন্ধন হয়ে থাকবে। এভাবে দীর্ঘদিন চলতে থাকলে একটা বিশাল ডাটাবেজ তৈরী হবে বৈকি?

টিকেটিং:
কোনো কোনো ক্ষেত্রে আপনি টিকেটিং পদ্ধতি চালু করতে পারেন এসএমএস এর মাধ্যমে তবে এই প্রক্রিয়ায় সমস্যা হলো যদি টিকেটে মূল্য পরিশোধ এর ব্যাপার থাকে তাহলে আপনি এই সুবিধা পাবেন না। যদি বিশেষ সুযোগ বা সৌজন্য এন্ট্রি দিতে চান তাহলে এটা বেশ কাজের। যেমন আপনি একটা ফেয়ারের আয়োজন করলেন। সেখানে কেউ যদি বিশেষ সুবিধা নিয়ে প্রবেশ করতে চায় তাহলে তাকে আপনার সেই চার ডিজিটের নাম্বারে একটি এস্এমএস পাঠাতে হবে। তিনি ফিরতি মেসেজে সাথে সাথে আরেকটি বার্তা পাবেন যাতে লেখা থাকবে যে তিনি মেসেজ শো করে ফেয়ারে প্রবেশ করতে পারেন। এ ধরনের টিকেটিং সৌজন্যমূলক হয়ে থাকে।

বিশেষ অফার:
ধরুন আপনি ঘোষণা দিলেন যে ঈদ উপলক্ষে আপনার শপ থেকে বিশেষ ছাড় দেয়া হবে। শর্ত হলো ৫০৫০ নাম্বারে একটা মেসেজ পাঠাতে হবে। ফিরতি মেসেজে ৫-১০ শতাংশ ছাড় বা ক্যাশব্যাক দেয়া

ডিজিটাল মার্কেটিং এর নতুন রুপ হিসেবে ওয়ালেটমিক্স তার ক্লায়েন্টদের সুবিধার্থে এই সেবা চালু করেছে। এই সেবা পেতে যোগাযোগ করুন ওয়ালেটমিক্স অফিসে।

Published : আগস্ট ৮, ২০১৬ | 1731 Views

  • img1

  • Helpline

    +880 1709962798